সর্বশেষ

 

 

প্রতিযোগিতা কাঠামো

‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ প্রতিযোগিতায় ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির যেকোনো শিক্ষার্থী (এসএসসি পরীক্ষার্থী ব্যতীত) অংশগ্রহণ করতে পারবে।
ইংরেজি মাধ্যমের ক্ষেত্রে স্ট্যান্ডার্ড সিক্স থেকে ‘ও লেভেলের শিক্ষার্থীরা এ আয়োজনে অংশ নিতে পারবে।

এই প্রতিযোগিতাটি ২ টি ধাপে বিভক্ত।

১। বাছাইপর্ব ২। মূলপর্ব


বাছাইপর্ব

একাধিক ধাপে বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

প্রথম পর্যায়

প্রথম পর্যায়ে ৪০টি নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন ও অনুধাবনমূলক প্রশ্নের মাধ্যমে প্রাথমিক মেধা যাচাই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। যার শীর্ষ ২০ জন পরবর্তী পর্যায়ের জন্যে মনোনীত হবে। সময়: ৬০ মিনিট।

মানবণ্টন

নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের মাঝে থাকছে-

বানান ভিত্তিক, শব্দার্থ ভিত্তিক, ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে সহজ সাধারণ জ্ঞান ভিত্তিক, বাংলা, বাংলা ভাষা ও বাংলা ব্যাকরণ ভিত্তিক অন্যান্য বিষয়াবলী নিয়ে (যেমন- এক কথায় প্রকাশ, সমার্থক শব্দ + প্রবাদ-প্রবচন, বিরাম চিহ্ন/ সহজ সন্ধি/ পদ প্রকরণ ইত্যাদি), ভাষা আন্দোলন নিয়ে প্রশ্ন।

অনুধাবনমূলক প্রশ্ন--

পত্রিকা/ বই/ গদ্য/ পদ্য থেকে তিনটি অনুচ্ছেদ দেয়া হবে। সেই অনুচ্ছেদগুলোর উপর সত্য-মিথ্যা, ভুল সনাক্তকরণ, অনুচ্ছেদের শিরোনাম নির্বাচন, মূলভাব সনাক্তকরণ ও অন্যান্য সৃজনশীল প্রশ্নের মাধ্যমে প্রতিযোগীর মেধা ও মনন শক্তি যাচাই করা হবে।

দ্বিতীয় পর্যায়

এ পর্যায়ে একাধিক আকর্ষণীয় ধাপের মাধ্যমে প্রতিযোগীর জ্ঞান, মেধা, মনন ও দক্ষতা যাচাইয়ের মাধ্যমে শীর্ষ প্রতিযোগী নির্বাচিত হবে- যারা ঢাকায় চ্যানেল আইয়ের স্টুডিও রাউন্ড বা প্রতিযোগিতার মূলপর্বে অংশগ্রহণ করার জন্যে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হবে।

মূলপর্ব

মূলপর্বে বাছাইকৃত সেরা প্রতিযোগীদের নিয়ে চ্যানেল আই স্টুডিওতে বাংলা ভাষা নিয়ে আকর্ষণীয় সহজ ও মজার খেলার মাধ্যমে ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-২০১৯ কে খুঁজে বের করা হবে যা চ্যানেল আই-এর পর্দায় সম্প্রচার করা হবে।


উল্লেখ্য, ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ ২০১৯ এর চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় শীর্ষস্থান অধিকারী পাবে ১০ লক্ষ টাকার মেধাবৃত্তি এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী পাবে যথাক্রমে ৩ লক্ষ টাকা ও ২ লক্ষ টাকার মেধাবৃত্তি। এছাড়াও প্রথম দশ জন প্রতিযোগী পাবে ১টি ল্যাপটপসহ ব্যক্তিগত পাঠাগার করার জন্যে ৫০ হাজার টাকা সমমূল্যের বাংলা বই ও বইয়ের আলমারি।